সিলেটে অনড় বিএনপি জামায়াত, কেউ ছাড় দিতে রাজি নয়

50 total views, 1 views today

সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপি ও জামায়াত কেউ কাউকে ছাড় দিতে রাজি নয়। জামায়াত প্রার্থী অ্যাডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়েরের প্রচারণা চলছে জোরেশোরে। তাকে ২০ দলীয় জোটের একক প্রার্থী ঘোষণার জন্য জামায়াত সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালালেও বিএনপি তাতে সাড়া দেয়নি। উল্টো তারা তাদের দলীয় প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরীকে সমর্থন জানাতে অনুরোধ করে।

বুধবার ঢাকায় জোটের সভায় তিন সিটিতে একক প্রার্থী দেয়ার ব্যাপারে নীতিগত সিদ্ধান্ত হলেও সিলেটে কে প্রার্থী হবেন তার নাম ঘোষণা করা হয়নি। নেতৃবৃন্দরা আশাবাদী শেষ পর্যন্ত সমঝোতা হবে। তবে কেন্দ্রের সমঝোতার কথা বলা হলেও সিলেটের চিত্র সম্পূর্ণ ভিন্ন। এখানে কেউ কাউকে ছাড় দিতে রাজি নয়। উভয় দলই নিজের মতো করে চালিয়ে যাচ্ছে প্রচারণা। আরিফ জামায়াতকে বাদ দিয়ে জোটের শরিকদের সাথে বৈঠক করেছেন গত রোববার। দুই দিন পর বুধবার বৈঠক করেছেন এহসানুল মাহবুব জুবায়ের। উভয়ই চাচ্ছেন তাদের সমর্থন। সিলেটে বিএনপি ও জামায়াত ছাড়া শরিকদের মধ্যে খেলাফত মজলিস ও জমিয়তের অনেক সমর্থক রয়েছেন।

একটি সূত্র জানায়, জামায়াত নিয়ে বিএনপি যতটা না বিচলিত তার চেয়ে বেশি শঙ্কিত দলের বিদ্রোহী প্রার্থী মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিমকে নিয়ে। সিলেটের আদি বাসিন্দা সেলিমের রয়েছে একটি বড় ভোট ব্যাংক। বিএনপির জন্মলগ্ন থেকে তিনি এর সাথে জড়িত থাকায় বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী তার সাথে রয়েছেন। তারা প্রকাশ্যে না এলেও নেপথ্যে সেলিমের পক্ষে রয়েছেন। তিনি এখনো অনঢ় অবস্থানে থেকে জোরেশোরে চালিয়ে যাচ্ছেন প্রচারণা। এ অবস্থায় বেকাদায় পড়েছেন আরিফ। নানা কারণে দলের তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সাথে তার দূরত্ব থাকায় মাঠে নামার আগে এখন ঘর গোছাতে ব্যস্ত আরিফ। দফায় দফায় বৈঠক করে দলের ঐক্য ধরে রাখার ওপর তিনি জোর দিচ্ছেন। বিদ্রোহী প্রার্থী বদরুজ্জামান সেলিম প্রসঙ্গে গতকাল মহানগর বিএনপির এক কর্মিসভায় আরিফ বলেন, ‘বদরুজ্জামান সেলিম সবসময় দলের সুখ-দুঃখে পাশে ছিলেন। তিনি খুবই কর্মঠ নেতা। বর্তমানে তিনি আবেগে বিভক্ত হয়ে পড়েছেন। আমি আশা করি, নির্বাচনে তিনি আমার পাশে এসে দাঁড়াবেন।’

এ দিকে জামায়াতের মহানগর আমির এহসানুল মাহবুব জুবায়েরের পক্ষে দলের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী মাঠে সক্রিয় রয়েছেন। দেশের একমাত্র সিলেট সিটিতে জামায়াত প্রার্থীকে ২০ দলীয় জোটের সমর্থন দেয়া হবে এমন প্রত্যাশা ছিল নেতাকর্মীদের। কিন্তু সে প্রত্যাশা এখনো পূরণ না হলেও হতাশ নন তারা। চালিয়ে যাচ্ছেন জুবায়েরের পক্ষে প্রচারণা। সিলেটে সাংগঠনিকভাবে বেশ শক্তিশালী জামায়াত সরকারের দমন-পীড়ন সত্ত্বেও নীরবে তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। ক্লিন ইমেজের অধিকারী জুবায়ের সিটি নির্বাচনে ভোটারদের সমর্থন লাভে সক্ষম হবেন এমন আশাবাদ তার সমর্থকদের।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  • 9
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    9
    Shares