সিলেট নিউজ টাইমস্ | Sylhet News Times

‘এমপিপুত্রের’ গাড়িচাপায় মৃত্যু: টাকার বিনিময়ে আপসের চেষ্টা

227 total views, 1 views today

নিউজ ডেস্ক:: রাজধানীর মহাখালী ফ্লাইওভারে একটি ব্যক্তিগত গাড়ির ধাক্কায় সেলিম ব্যাপারী (৫৫) নামে একজন নিহত হন। আর সেই গাড়িটি নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) মোহাম্মদ একরামুল করিম চৌধুরী এবং তার স্ত্রী নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুন নাহার শিউলীর সন্তান শাবাব চৌধুরীর বলে রাজধানীর কাফরুল থানায় মামলা হয়।

এ ঘটনায় দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের জন্য এমপির পক্ষ থেকে টাকার বিনিময়ে আপসের প্রস্তাব পেয়েছে নিহতের পরিবার। সেলিম ব্যাপারীর পরিবারের ভাষ্য, অন্তত ‘মাস চলার মতো’ কিছু টাকা ব্যাংকে ফিক্সড ডিপোজিট করে দেওয়ার বিনিময়ে মামলা তুলে নেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে তাদের।

নিহত সেলিম দুই যুগের বেশি সময় ধরে নাওয়ার প্রোপার্টিজের গাড়িচালক হিসেবে চাকরি করে আসছিলেন। সেই নাওয়ার প্রোপার্টিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইমরান হোসেন জানান, এমপি একরামুল করিম চৌধুরী বৃহস্পতিবার রাতে তাকে ফোন করে ‘সমঝোতার প্রস্তাব’ দিয়েছেন। এমপি চান, নিহতের পরিবারের পাশে থাকার বিনিময়ে তারা কাফরুল থানায় করা মামলা প্রত্যাহার করে নেবে। ফোনে কথা বলার পর তাদের বারিধারার অফিসে এমপি লোক পাঠিয়েছিলেন সমঝোতার বিষয়ে আলোচনার জন্য।

এ সময় সাংসদ বা তার পরিবার বা পুলিশের কেউ ওই বৈঠকে ছিলেন না। তবে নিহত সেলিম ব্যাপারীর স্ত্রী, মেয়ে, মেয়ের জামাইসহ কয়েকজন আত্মীয় সেখানে ছিলেন। সেলিম ছিল পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। তার পরিবার যেন বাঁচতে পারে সেজন্য ৩০ লাখ টাকার একটা ফিক্সড ডিপোজিট করে দিতে এমপি সাহেবকে অনুরোধ করা হয়েছে বলে জানান ইমরান হোসেন।

সেলিমের পরিবার সমঝোতায় রাজি কি না এ বিষয়ে ইমরান হোসেন জানান, টাকা পয়সা দিয়ে তো জীবনের দাম হবে না। আবার মামলা চালিয়েই বা কী হবে? পরিবারটির দিকে তাকিয়েই মূলত এমপির সমঝোতার প্রস্তাবে সাড়া দেওয়া হয়েছে। এমপি কথা দিয়েছেন, দুই একদিনের মধ্যে এর মীমাংসা করবেন। ফলে তার প্রতি সবাই আস্থা রেখেছেন।

সমঝোতার বিষয়ে সেলিম ব্যাপারীর মেয়ের জামাই আরিফ ভূঁইয়া জানান, বৃহস্পতিবার রাতে তারা ইমরানের অফিসে এমপির লোকজনের সাথে সমঝোতার বিষয়ে কথা বলেছেন। এখানে ইমরান যা সিদ্ধান্ত দেবেন সেটাই তাদের পরিবারের সিদ্ধান্ত।

তবে সমঝোতা প্রস্তাবের বিষয়ে নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম ও তার স্ত্রী কামরুন্নাহার শিউলির সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তারা ফোন ধরেননি।

১৯ জুন, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে মহাখালীর ফ্লাইওভারে সড়ক দুর্ঘটনার এ ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনার পর গাড়িটি দ্রুত সংসদ ভবনের উল্টো দিকের ন্যাম ফ্ল্যাটে ঢুকে যায়। গাড়িটিকে অনুসরণ করেন একজন মোটরসাইকেল ও আরেকজন প্রাইভেটকার আরোহী। পরে ন্যাম ফ্ল্যাট ও এর আশপাশের সিকিউরিটি গার্ডরা জানান গাড়িটি নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করীম চৌধুরীর।

পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, ঢাকা মেট্রো ঘ ১৩-৭৬৫৫ নম্বরের গাড়ির ধাক্কায় সেলিম ব্যাপারী নিহত হন। বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটির (বিআরটিএ) তথ্য অনুযায়ী, গাড়িটির মালিক কামরুন নাহার শিউলী। চলতি বছরের ১৮ মার্চ গাড়িটি কেনেন তিনি।

কমেন্ট
শেয়ার করুন