সরকারি মেশিন নষ্টের অজুহাত, বাড়তি টাকায় হাতে অাসে পাসপোর্ট 

শংকর-দত্ত:: সুনামগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসেমেশিন নষ্টের অজুহাতে ছাতকে প্রায় ৩শতাধিক গ্রাহক পাচ্ছেনা পাসপোর্ট। অভিযোগ উঠেছে, কর্মকর্তা-কর্মচারিদের বিরুদ্ধে ব্যাপক দূর্নীতি-অনিয়ম । ডেলিভারি মেয়াদ উর্ত্তীণ হবার তিনমাস পরও পাসপোর্ট না পেয়ে মাসের পর মাস অফিসে এসে ধর্না দিচ্ছেন ছাতকের ৩শতাধিক গ্রাহক।

অথচ বিভিন্ন দেশের ভিসা প্রদানকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে গ্রাহকরা পড়েছেন চরম বিপাকে। ওয়ানষ্টপ সার্ভিস, হেল্প ডেক্স, সিটিজেন চার্টার, ওয়ার্ক চার্ট, অপেমানদের জন্য সিটিং ও ব্যাংকের বুথ না থাকায় চরম গ্রাহক ভোগান্তি লক্ষ করা যাচ্ছে।

জানাযায়, অফিসারেরা ঢাকায় সরকারি মেশিন নষ্টের অজুহাতে নিজ ব্যয় দেখিয়ে অন্যত্র পাসপোর্ট ছাপানোর নামে অতিরিক্ত আরো হাজার-দুহাজার টাকা আদায় করেছেন গ্রাহকের কাছ থেকে। যেখানে সরকারি ফি-য়ের নামে সাধারন পাসপোর্ট হাতে অাসতে অাসতে ৭থেকে ৮হাজার টাকা ব্যয় হচ্ছে ভোক্তভূগিদের অভিযোগ।

হাজার দুহাজার টাকা অফিসারদের দিলে পাসপোর্ট সহজেই পাওয়া যায়!
এমনটাই অভিযোগ গ্রাহকদের। এছাড়া ও অফিস ঘিরে রয়েছে দালালদের সরব পদচারনা। অফিস-সহকারিদের নেতৃত্বে এখানে গড়ে উঠেছে একটি অপরাধি সিন্ডিকেট।

প্রায় ৩শতাধিক গ্রাহকের পাসপোর্ট হাতে পাওয়ার একমাস মেয়াদ পেরিয়ে গেলেও প্রত্যহ অফিসে ঘুরে তারা পাসপোর্ট হাতে পাচ্ছেন না। এ ব্যাপারে জেলা পাসপোর্ট অফিসের সহকারি কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম জানান, ঢাকায় মেশিন নষ্ট থাকায় পাসপোর্ট আসতে দেরি হচ্ছে। এদিকে, পাসর্পোটের ব্যাপারে বিভিন্ন ট্রাভেলন্স মালিকদের জিঙ্গাসা করলে উনারা বলেন, এসব সরকারি লাইসেন্স প্রাপ্ত বড় দালাল যেন দোকান খুলে বসিয়েছেন সরকার।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.