সিলেট নিউজ টাইমস্ | Sylhet News Times

নবীগঞ্জে বউ-শ্বাশুড়ী হত্যাকান্ড: রুমির বন্ধুসহ গ্রেফতার ২

60 total views, 2 views today

নিউজ ডেস্ক:: নবীগঞ্জ উপজেলার সাদুল্লাপুর গ্রামে বউ-শ্বাশুড়ি হত্যাকান্ডের ৩ দিনব্যাপী জিজ্ঞাসাবাদ শেষে হত্যা সংশ্লিষ্টতায় একই গ্রামের শুভ রহমান ও আবু তালেবকে দায়েরকৃত হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে বউ শ্বাশুড়ি হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দাড়ালো ছুরিটি সাদুল্লাপুর গ্রামের একটি ধানের জমি থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

হত্যাকান্ডের মুল মোটিভ সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে জানানো হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। বুধবার বিকেলে তাদের গ্র্রেফতার দেখানো হয়। এর পূর্বে গত রবিবার রাত থেকে সোমবার সকাল পর্যন্ত পুলিশ সন্দেহভাজন হিসেবে প্রতিবেশী ফুরুক মিয়ার বাড়ির কাজের ছেলে আবু তালেব, প্রতিবেশী ক্বারী আব্দুস ছালাম, তার ছেলে সহিদুর রহমান, একই গ্রামের শুভ রহমান ও রিপন সুত্রধরকে এবং মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আরও ৪ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে।

আটককৃতদের মধ্যে ক্বারী আব্দুস ছালাম, তার ছেলে সহিদুর রহমান, একই গ্রামের রিপন সুত্রধর ও অপর ৪ জনকে স্থানীয় চেয়ারম্যানের জিম্মায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে। এছাড়াও হত্যাকান্ডের সংশ্লিষ্টতা পাওয়ায় সাদুল্লাপুর গ্রামের বখাটে শুভ রহমান ও আবু তালেবকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

এদের কাছ থেকে গুরুত্বপুর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে বলে জানা গেছে। গ্রেফতারকৃত শুভ রহমান ও তালেব মিয়া ছাড়াও আরও একাধিক লোক জড়িত রয়েছে বলে অপর একটি সুত্রে জানা গেছে। তাদের গ্রেফতারে জোর চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ। বিষয়টি নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এস.এম আতাউর রহমান এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন হত্যাকান্ডে ছুরি উদ্ধার হয়েছে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে পরবর্তী ঘটনা জানানো হবে।

উল্লেখ্য, গত রবিবার রাত অনুমান ১১ টায় সাদুল্লাহ্ পুর গ্রামের মৃত রাজা মিয়ার স্ত্রী মালা বেগম (৫০) ও তার পুত্রবধূ রুমি বেগম (২১) নিজ বাড়ীতে দূর্বৃত্তদের হাতে নির্মম ভাবে খুন হন। এ ঘটনায় নবীগঞ্জ উপজেলার পাশাপাশি দেশ বিদেশে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। ঘটনার মুটিভ উদঘাটনে আইনশৃংঙখলা রক্ষাকারী বাহিনী তৎপর হয়ে উঠেছে।

নতুন বাড়িতে যাওয়া হলনা বউ-শ্বাশুড়ীর:
সৌন্দর্য্যে ঘেরা রাস্তার পাশে নতুন বাড়িতে যাওয়া হলনা নবীগঞ্জ উপজেলার কুর্শি ইউনিয়নের সাদুল্লাপুর গ্রামের লন্ডন প্রবাসী আখলাক চৌধুরীর মা মালা বেগম ও স্ত্রী রুমি আক্তারের। সাদুল্লাপুর গ্রামের রাস্তার পাশেই আখলাক চৌধুরীর পৈতৃক সম্পত্তির উপর নতুন ঘর নির্মান করেন। নতুন ঘরে উঠার স্বপ্ন স্বপ্নই রয়ে গেল। গত রবিবার রাত ১১টায় উপজেলার কুর্শি ইউনিয়মের সাদুল্লাপুর গ্রামে অজ্ঞাতনামা দুর্বৃত্তদের হাতে খুন হন সাদুল্লাপুর গ্রামের মৃত রাজা মিয়ার স্ত্রী ও লন্ডন প্রবাসী পুত্র আখলাক চৌধুরীর মা মালা বেগম, বউ রুমি বেগম। রুমির ভাই পল্লী চিকিৎসক নজরুল ইসলাম জানান, আমার বোনের স্বামী লন্ডন থেকে দেশে ফিরে আসার পরই সদ্য নির্মাণ বাড়িতে উঠার কথা ছিল। গত ৪-৫ মাস পূর্বে ঘরের কাজ সম্পন্ন হয়। নতুন ঘরে উঠার স্বপ্ন স্বপ্নই রয়ে গেছে আমার বোনের।

কমেন্ট
শেয়ার করুন