সিলেট নিউজ টাইমস্ | Sylhet News Times

হাটখোলার উমাইরগাও উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ তালা বিশিষ্ট ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

26 total views, 2 views today

সিলেট সদর উপজেলার হাটখোলা ইউনিয়নের উমাইরগাও উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮৬ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ৬ তালা বিশিষ্ট প্রথম তালা ভবনের ফলক উন্মুচনের মাধ্যমে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আশফাক আহমদ।

গতকাল ১৬ এপ্রিল বিকেলে উদ্ধোধন শেষে বিদ্যালয় মাঠে এক জনসভা অনুষ্ঠিত হয়। বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আহমদ মিয়ার সভাপতিত্বে ও সহকারী শিক্ষক মাসুদ আহমদের পরিচালনায় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আশফাক আহমদ। তিনি এসময় বলেন শিক্ষার প্রসার যত বাড়বে এলাকা তত উন্নত হবে। জাতিকে যত বেশি শিক্ষিত করা যাবে দেশ তত সম্মানিত হবে। বর্তমান সরকার শিক্ষা বান্ধব সরকার। তাই বিনামূল্যে বই, উপ বৃত্তিসহ শিক্ষা উপকরণ শিক্ষার্থীদেরকে প্রদান করছে। শুধু শিক্ষার গুণগত মান নয় নতুন নতুন ভবন নির্মাণ করে শিক্ষার পরিবেশ তৈরী করছে। তিনি আরো বলেন এ সরকার দেশকে একটি উন্নত দেশের কাতারে নিয়ে যাচ্ছে।

যা আমরা কখন কল্পনাই করতাম না। তাই এ সরকারকে আরো বেশি দিন ক্ষমতায় রাখতে সকলকে সহযোগিতা করতে হবে। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন হাটখোলা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান হাজী মোশাহিদ আলী, হাজী জমির উদ্দিন, এডভোকেট জালাল উদ্দিন, প্রধান শিক্ষক হারুনুর রশিদ, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ব বিদ্যালয়ের অডিট এন্ড একাউন্টিং অফিসার ফখর উদ্দিন। বক্তব্য রাখেন ইউ/পি সদস্য নজরুল ইসলাম, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইসলাম উদ্দিন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা নান্টু চন্দ্র চন্দ, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, সাবেক মেম্বার আতাউর রহমান, আবুল বশর মেম্বার, আব্দুল হামিদ মেম্বার, নূর আহমদ মেম্বর, কান্দিগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার কাচা মিয়া, মুরব্বী জাহান উদ্দিন, গোলাম রব্বানী, কবির উদ্দিন, আলকাছ মিয়া, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড এর সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুম আহমদ, ছাত্রলীগ নেতা হাবিব আহমদ।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন সহকারী শিক্ষক আলতাফুর রহমাম, ছাত্র-ছাত্রীদের পক্ষথেকে বক্তব্য রাখেন দশম শ্রেণীর ছাত্রী তানজিনা বেগম। শুরুতে পবিত্র কোর আন থেকে তেলাওয়াত করেন দশম শ্রেণীর ছাত্র আবুল হাসান। সংগীত পরিবেশন করেন দশম শ্রেণীর ছাত্রী পূর্ণিমা রানী দেবী, রুহেনা বেগম ও স্বপনা বেগম।

কমেন্ট
শেয়ার করুন