‘দেবী’র পোস্টার কাঠগড়ায়

বিনোদন ডেস্ক:: নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের দেবী উপন্যাস অবলম্বনে অভিনেত্রী জয়া আহসানের প্রযোজনায় নির্মিত হয়েছে চলচ্চিত্র ‘দেবী’। এই ছবিতে হুমায়ূন আহমেদের কালজয়ী মিছির আলীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। অভিনেত্রী জয়া আহসান রয়েছেন রানু চরিত্রে। এটি পরিচালনা করেছেন কলকাতার নির্মাতা অনম বিশ্বাস।

ছবির শুটিং ইতিমধ্যে শেষ। এখন চলছে পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ। চলতি বছরই ছবিটি মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে। তার আগে গত ১০ এপ্রিল মুক্তি পায় ‘দেবী’র প্রথম পোস্টার। পোস্টারটিতে হাতে আঁকা নান্দনিক স্থিরচিত্রের মাধ্যমে অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরীকে উপস্থাপন করা হয়েছে। চোখে কালো ফ্রেমের চশমা ও ঠোঁটে জ্বলন্ত সিগারেট নিয়ে একেবারে মিসির আলীর মতোই হাজির হয়েছেন আয়নাবাজি খ্যাত অভিনেতা।

তবে সরকারি অনুদানে নির্মিত ছবিতে ধূমপানের দৃশ্যকে প্রাধান্য দিয়ে প্রকাশিত পোস্টার বিরোধপূর্ণ বলে অভিমত ব্যক্ত করেছে তামাক নিয়ন্ত্রণে বেসরকারি সংগঠনগুলোর সম্মিলিত মঞ্চ বাংলাদেশ তামাক বিরোধী জোট। তারা এটির কঠোর সমালোচনা করেছেন। তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন অমান্য করে ‘দেবী’সিনেমার প্রচারনায় ব্যবহৃত পোস্টার প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন তারা। একই সাথে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের এ ধরনের লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে অবিলম্বে সেন্সর বোর্ড এবং তথ্য মন্ত্রণালয়কে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের অনুরোধও করা হয়েছে।

শুক্রবার জোটের পক্ষ থেকে বিবৃতি দিয়ে বলা হয়, বৃহস্পতিবার একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় ‘দেবী’সিনেমার একটি পোস্টার ছাপা হয়েছে। পোষ্টারটিতে বাংলাদেশ সরকারের আর্থিক অনুদানে জনপ্রিয় লেখক হুমায়ূন আহমেদ এর গল্প ‘দেবী’ অবলম্বনে নির্মিত ছবিটিতে নায়ক চঞ্চল চৌধুরীর ধূমপানরত ছবি প্রদর্শন করা হয়েছে। পোস্টারে ধূমপানের দৃশ্য এমন ভাবে প্রদর্শন করা ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন, ২০০৫ এর ধারা ৫ (ঙ) এর সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের ৫ এর (ঙ) ধারায় উল্লেখ করা হয়েছে, ‘বাংলাদেশে প্রস্তুতকৃত বা লভ্য ও প্রচারিত, বিদেশে প্রস্তুতকৃত কোনো সিনেমা, নাটক বা প্রামাণ্য চিত্রে তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহারের দৃশ্য টেলিভিশন, রেডিও, ইন্টারনেট, মঞ্চ অনুষ্ঠান বা অন্য কোনো গণমাধ্যমে প্রচার, প্রদর্শন বা বর্ণনা করিবেন না বা করাইবেন না।’

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •