‘চরিত্রের এই বৈচিত্র্য বরাবরই আমাকে টানে’

34 total views, 1 views today

বিনোদন ডেক্স:: জনপ্রিয় অভিনেত্রী জ্যোতিকা জ্যোতি। ছোট পর্দায় অনেক আগেই নিজেকে একজন সুঅভিনেত্রী হিসেবে প্রমাণ করেছেন। পাশাপাশি বড় পর্দার অফ ট্র্যাকের ছবিতেও তার উপস্থিতি নজর কেড়েছে দর্শকদের। সব মিলিয়ে ছোট ও বড় পর্দায় বেশ সফলও বলা চলে তাকে। এদিকে গত এক বছরে ছোট পর্দায় একেবারেই হাতে গোনা কাজ করেছেন তিনি। এ সময়টায় তিনি মনযোগী হয়েছেন চলচ্চিত্রে।

বর্তমানে নিজের অভিনীত ‘মায়া’ নামের ছবি নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন এ অভিনেত্রী। সব মিলিয়ে এই সময়টা কেমন কাটছে? উত্তরে জ্যোতিকা জ্যোতি বলেন, অনেক ভালো কাটছে। বলতে পারেন আমি চলতি সময়টা ‘মায়া’য় ডুবে আছি। কারণ আমি যখন যে ছবিটা করি তার কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত সেই চরিত্রটির মাঝে থাকার চেষ্টা করি। এখনও আমি মায়া’র মধ্যেই রয়েছি। ‘মায়া’ আপনার অভিনীত দ্বিতীয় সরকারি অনুদানের ছবি। ছবিতে গ্রামবাংলার একজন নারীর চরিত্রে দেখা যাবে আপনাকে। কেমন মনে হচ্ছে সব কিছু? জ্যোতিকা জ্যোতি বলেন, শাহাবুদ্দিন আহমেদের চিত্রকর্ম ‘ওমেন’ এবং কামাল চৌধুরীর কবিতা ‘যুদ্ধশিশু’ অবলম্বনে পরিচালক মাসুদ পথিক নির্মাণ করছেন ‘মায়া-দ্য লষ্ট মাদার’। এ ছবিটির নাম ভূমিকায় অভিনয় করছি আমি। পরিচালক স্ক্রিপ্ট শোনানোর পর আমি অনেকদিন এই নিয়ে চিন্তা করেছি। মায়া চরিত্রটিকে নিজের ভেতর ধারণের চেষ্টা করেছি। এরপরই ৯ই মার্চ থেকে এর শুটিংয়ে অংশ নিয়েছি।

চরিত্রটি সম্পর্কে বলুন? জ্যোতি বলেন, মায়া একজন কৃষক, একজন মা, একজন প্রেমিকা, একা যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়া এক সংগ্রামী নারী। চরিত্রের এই বৈচিত্র্য বরাবরাই আমাকে টানে। তাই নির্দিষ্ট ছক ভাঙ্গার চেষ্টা আমার নিরন্তর। মায়া তেমনই এক এক্সপেরিমেন্টাল কাজ আমার জন্য। আমি চেষ্টা করেছি মায়া হয়ে ওঠার। এ ছবিটি পর্দায় যাওয়া পর্যন্ত দর্শকদের আমি পাশে চাই। কলকাতায় ‘রাজলক্ষী শ্রীকান্ত’ ছবিতে কাজ শেষ করে এসেছেন। তার কি খবর? জ্যোতিকা জ্যোতি বলেন, দেখুন অনেক দিন আমি ভালো কাজের অপেক্ষায় ছিলাম। গতানুগতিক কাজ করবো না বলে ছোট পর্দায় নাটকেও তেমন কাজ করিনি। সেই বিরতির পর আমি ‘রাজলক্ষী শ্রীকান্ত’ ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হই। এটি একটি ঐতিহাসিক গল্পের ছবি।

প্রদীপ্ত ভট্টাচার্য্যরে মতো গুণী পরিচালক এটি নির্মাণ করছেন। আমি ছবিতে রাজলক্ষীর ভূমিকায় অভিনয় করছি। আর আমার শ্রীকান্ত হয়েছেন হৃতিক চক্রবর্তী। ছবির কাজ এখনও শেষ হয়নি। তবে আমার অংশের কাজ শেষ করে এসেছি আমি। অনেক গোছানো শুটিং হয়েছে। সেই সময়টাতে আমি রাজলক্ষী বনে গিয়েছিলাম। সেই রেশটা কাটিয়ে এখন ‘মায়া’ হয়ে উঠেছি। ‘নুসরাত’ নামক একটি ছবিতেওতো চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন? জ্যোতিকা জ্যোতি বলেন, চুক্তিবদ্ধ এখনও হইনি। কথা চলছে। সে ছবিতেও নাম ভূমিকায় কাজ করার কথা হচ্ছে। ব্যাটে বলে মিললে হয়তো করবো। দেখা যাক কি হয়।

সামনে বানিজ্যিক ছবিতে অভিনয় করবেন? জ্যোতি বলেন, আমার কাছে গল্প, চরিত্র, পরিচালক মূখ্য। বানিজ্যিক কিংবা অফ ট্র্যাক এসব নিয়ে আমি ভাবি না। ভালো গল্প ও চরিত্র পেলে আমি নিয়মিত চলচ্চিত্রেই অভিনয় করে যাবো। গতানুগতিক কাজ আর করবো না। এই সময়ে দেশের চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন বলে মনে হয়? জ্যোতিকা জ্যোতি বলেন, অনেক পরিবর্তন এসেছে আমাদের চলচ্চিত্রে। দর্শক ধীরে ধীরে আবার হলমুখী হচ্ছেন। গত দুই বছরে বেশ কিছু ভালো ছবি হয়েছে, যেগুলো ভালো ব্যবসা সফলতাও পেয়েছে।

সামনে চলচ্চিত্রের অবস্থা আরও ভালোর দিকে যাবে বলে প্রত্যাশা রখি। ছোট পর্দায় কি দেখা যাবে? জ্যোতিকা জ্যোতি বলেন, নিয়মিত হয়তো দেখা যাবে না। তবে খুব ভিন্নধর্মী কিছু হলে কাজ করতেও পারি।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •