৩০ দিনের যুদ্ধবিরতি সিরিয়ায়

10 total views, 1 views today

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::  মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সিরিয়ায় ৩০ দিনের যুদ্ধবিরতির পক্ষে সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ। স্থানীয় সময় শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য দেশগুলো বিষয়টি নিয়ে বৈঠকে বসে।

সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার খবরে বলা হয়, গত শুক্রবারও যুদ্ধবিরতির বিষয়ে সিদ্ধন্ত নিতে বৈঠক করে নিরাপত্তা পরিষদ। তবে সেদিন সিরিয়া ও রাশিয়াসহ পরিষদের বেশ কয়েকটি দেশের বিরোধীতায় সিদ্ধন্তে পৌঁছানো সম্ভব হয়নি। ৩০ দিনের যুদ্ধবিরতির ফলে সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কের কাছে অবস্থিত পূর্ব ঘোতা অঞ্চলে বোমা বর্ষণ বন্ধ থাকবে এবং সেখানে খাবার, ওষুধসহ জীবন রক্ষাকারী বিভিন্ন জিনিস সরবরাহে বাধা থাকবে না। তবে যুদ্ধবিরতির সিদ্ধান্তে ২৪ ঘণ্টা বিলম্বের জন্য রাশিয়াকে দোষারোপ করেছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন দূত নিকি হ্যালে। তিনি বলেন, রাশিয়ার সিদ্ধান্তের জন্য নিরাপত্তা পরিষদের অন্য সদস্যদের অপেক্ষা করতে গিয়ে মানুষের দুর্দশা আরও বেড়েছে।

কী হচ্ছে সিরিয়ায়,,

সিরিয়া এককভাবে কোনো গোষ্ঠী, সরকার বা দলের নিয়ন্ত্রণে নেই। দেশটির উত্তরাঞ্চল রয়েছে পিকেকে, ওয়াইপিজি ও এসডিএফ-এর মতো বিভিন্ন কুর্দি বিদ্রোহী গোষ্ঠীর দখলে। দক্ষিণাঞ্চল শাসন করছেন সিরিয়া সরকারের বর্তমান প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ। এছাড়া ছড়িয়ে-ছিটিয়ে কিছু অঞ্চল দখল করে রেখেছে কয়েকটি বিদ্রোহী দল ও ইসলামিক স্টেট (আইএস)। এমনই বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত একটি অঞ্চল পূর্ব ঘোতা।
৪০ হাজার বাসিন্দার এই অঞ্চলটি ২০১৩ সাল থেকে অবরোধ করে রেখেছিল সিরিয়ার সরকারি বাহিনী। কারণ আসাদ নিয়ন্ত্রিত রাজধানী দামেস্কের কাছেই বিদ্রোহীদের পূর্ব ঘোতা সরকারের জন্য হুমকি।

গত রোববার থেকে সেখানে বিমান ও মর্টার হামলা চালানো শুরু হয়। হামলায় আসাদ সরকার পাশে পায় মিত্র রাশিয়াকে। সাত দিনের হামলায় এখন পর্যন্ত ৫০০ জন নিহত হয়েছে বলে জনিয়েছে সিরিয়ান অবজারভেটরি অব হিউম্যান রাইটস। আর আহতের সংখ্যা ২ হাজার ১২০ জনেরও বেশি।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •