আইনী লড়াইয়ে আক্কলের পাশে থাকবেন মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ

74 total views, 2 views today

ফেঞ্চুগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় আহত আক্কল আলীর খোঁজ নিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ। তিনি আক্কল আলীকে আইনী লড়াইয়ে সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন।

গত ২৮ জানুয়ারি আদালতে একটি মামলার হাজিরা দিতে বাড়ি থেকে বের হন ক্ষমতাসীন দলের কর্মী আক্কল আলী। পথিমধ্যে উপজেলার ঘিলাছড়া ইউনিয়নের মোকামেরতল সিএনজি অটোরিকশা স্ট্যান্ডে প্রতিপক্ষ স্থানীয় এক আওয়ামী লীগ নেতার ইন্দনে সন্ত্রাসীরা তাকে কুপিয়ে জখম করে। তার হাত পায়ের রগ কেটে দেওয়া হয়। প্রতিপক্ষের দায়ের করা একটি মামলায় সোমবার দুপুরে আদালতে হাজিরা দিতে আসেন চিকিৎসাধীন থাকা ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার বাদেদেউলী গ্রমের রওয়াব আলীর ছেলে আক্কল আলী। খবর পেয়ে মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ তাকে দেখতে ছুঁটে যান। তার চিকিৎসা ও মামলার খোঁজ খবর নেন তিনি।

প্রিয় নেতাকে কাছে পেয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে চোখের জল ফেলেন আক্কল। তখন আওয়ামী লীগের এই নেতাকে আক্কল বলেন- হামলাকারীদের বিরুদ্ধে তিনি ফেঞ্চুগঞ্জ থানায় হত্যা চেষ্টা মামলা দায়ের করেছেন। কিন্তু দলের কতিপয় নেতার ইন্দনে মামলার আসামিরা উল্টো তার বিরুদ্ধে পুলিশ সুপার ও সংশ্লিষ্ট থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। ক্ষমতাসীন দলের কর্মী আক্কল আলী আহতাবস্থায় সিএনজি অটোরিকশায় শুয়ে আদালতে হাজিরা দিতে আসেন।সাক্ষাৎকালে মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ তাকে শান্তনা দিয়ে বলেন- ‘চিন্তা করো না তুমি ন্যায় বিচার পাবে। শেখ হাসিনার শাসনামলে কেউ ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হয়নি, হবেও না।’ আইনী লড়াইয়ে তাকে সহায়তার আশ্বাস দেন তিনি।

হামলার দিন গুরুতর অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। সন্ত্রাসীদের ধারালো অস্ত্রে ক্ষতবিক্ষত তার হাত ও পা’সহ শরীরে একাধিকবার অস্ত্রপচার করা হয়েছে।

আহত আক্কল আক্ষেপ করে বলেন, ৩০ জানুয়ারি মিছিল নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সমাবেশে আসার জন্য আগে থেকেই প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রীকে সরাসরি এক নজর দেখবো বলে মনোভাসনা ছিল কিন্তু সন্ত্রাসীরা তার সে আশা পূরণ হতে দেয়নি।

আক্কল আলীর বড় ভাই আকমল আলী জানান,‘আমার ভাই যখন মৃত্যু শয্যায়, রাজাকার’ আব্দুল আলীসহ অভিযুক্তরা উল্টো পতিপক্ষ জনৈক আ’লীগ নেতার ইন্দনে আক্কল আলীর বিরুদ্ধে পুলিশ সুপার বরাবরে ও থানায় মিথ্যা অভিযোগ করে ফায়দা নেওয়ার চেষ্টা করে। এরআগেও একইভাবে বিভিন্ন মামলায় আক্কলের নাম জড়ানোর অভিযোগ করে তিনি বলেন, অবশ্য এসব মামলার অধিকাংশ আদালত খারিজ করে দিয়েছেন। প্রতিপক্ষ গ্রæপের হওয়াতে সন্ত্রাসীরা শেষ পর্যন্ত তার উপর সশস্ত্র হামলা করে।

মামলার আসামিদের গ্রেফতার ও পূর্বে বিভিন্ন মামলায় ষড়যন্ত্রমূলকভাবে জড়িয়ে সমাজে তার ভাইয়ের মানহানি ঘটনানো এবং ফের বিভিন্ন মামলায় জড়ানোর চেষ্টায় আসামিদের তৎপরতার প্রতিকার চেয়ে সোমবার পুলিশ সুপার বরাবরে একটি দরখাস্ত দিয়েছেন তিনি।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •