সিলেট নিউজ টাইমস্ | Sylhet News Times

শাশুড়িকে হত্যা করে পুত্রবধূকে ধর্ষণ

120 total views, 1 views today

নিউজ ডেস্ক:: মনোয়ারা বেগম নামে বৃদ্ধাকে হত্যা করে তার পুত্রবধূকে ধর্ষণ করেছে সন্ত্রাসীরা। ফরিদগঞ্জ দেইচর গ্রামে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে এই ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ মনোয়ারা বেগমের লাশ উদ্ধার ও ধর্ষিতাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য থানায় নিয়ে গেছে।

ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে শামিম নামের একজনকে আটক করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকালে চাঁদপুরের পুলিশ সুপার শামছুন্নাহার পিপিএম ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে থানা পুলিশকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়েছেন। ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইন-চার্জ শাহ আলম জানান, ভোরে সংবাদ পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে যান।

এ সময় গ্রামের সর্দার বাড়ির প্রবাসী ইউনুছ মিয়ার পাকা দালানে বিছানার উপর বৃদ্ধার লাশ পড়ে ছিল। এ ঘটনায় প্রতিবেশী শামিম হোসেন (২২) নামে এক যুবককে ও নিহতের পুত্রবধূকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

নিহত মনোয়ারা বেগম (৫৫) এর বড় ছেলে প্রবাসী সাইফুল ইসলামের স্ত্রী ওই ধর্ষিতা। তিনি জানান, রাত ১১টা নাগাদ শাশুড়িসহ তিনি একই বিছানায় ঘুমিয়ে পড়েন। গভীর রাতে দুইজন অজ্ঞাত পরিচয় লোক ঘরে ঢুকে তার শাশুড়িকে গলা টিপে হত্যা করে এবং তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। তারা যাওয়ার সময় তার হাত-পা ও মুখ বেঁধে পৃষ্ঠা ২ কলাম ৫

কক্ষের মেঝেতে ফেলে রেখে যায়। দুর্বৃত্তরা যাওয়ার সময় সকল কক্ষের দরজা বাইরে থেকে আটকে যায়। তারা যাওয়ার পর তিনি বহু কষ্টে কক্ষের দরজা খুলে পাশের কক্ষে থাকা ননদ জামাইকে ডাকে ও কক্ষের সিটকিনি খুলে দেয়। ননদ জামাই নাছির উদ্দিন বের হয়ে ডাক চিৎকার দিলে পার্শ্ববর্তী অন্যরা ছুটে আসে।

নিহতের ছোট ছেলে জাহিদুর রহমান (১৬) জানায়, আমি রাত ১০টায় ঘুমিয়ে পড়ি। একটি কক্ষে ঘুমিয়েছে আমার মা ও ভাবি। অন্য একটি কক্ষে ছিল দুলা ভাই নাছির উদ্দিন (২৬) ও আপা ইয়াছমিন আক্তার কবিতা (১৯)। রাত তিনটার দিকে দুলা ভাই আমাকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে। কক্ষ থেকে বের হয়ে ভাবির হাত ও পা বাঁধা দেখতে পাই। তখন শুনছিলাম ঘরে ডাকাত ঢুকেছে। কিন্তু আমাদের ঘরের কোনো দরজা-জানালা ভাঙ্গা হয়নি।

চাঁদপুরের পুলিশ সুপার সামছুন্নাহার জানান, আসল ঘটনাটি কি ঘটেছে অধিক তদন্ত ছাড়া কিছুই বলা যাচ্ছে না। এ ব্যাপারে আমরা নিহতের পুত্রবধূ ও সন্দেহজনক বেশ কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ অব্যাহত রেখেছি।

থানার অফিসার ইন-চার্জ শাহ আলম আরো জানান, জোর করে ঘরে প্রবেশ করার কোনো আলামত খুঁজে পাওয়া যায়নি। প্রাথমিকভাবে নিহতের ছেলের বউ এর সঙ্গে যৌন মিলনের আলামত পাওয়া গেছে। বিষয়টি আরো নিশ্চিত হতে তার ডাক্তারি পরীক্ষা করা হবে।

কমেন্ট
শেয়ার করুন