জৈন্তাপুরে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় ১০৭ জনকে আসামী করে মামলা

23 total views, 1 views today

নিজস্ব প্রতিনিধি:: জৈন্তাপুর উপজেলার চিকনাগুল ইউনিয়নের পাটনীপাড়া গ্রামে শিরণীর অনুষ্ঠানে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় জৈন্তাপুর থানায় মামলা হয়েছে। যার নং- ২ (৫-২-১৮)। মামলায় সুনাম উদ্দিনকে প্রধান আসামী করে ৩৭ জনের নাম উলে­খ ও ৬০/৭০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করা হয়েছে।

উক্ত হামলার ঘটনায় নারী-পুরুষ ও শিশু সহ প্রায় ২৫জন আহত হন। এসময় সন্ত্রাসীরা ৬টি বসতঘর ৫টি বৈদুতিক মিটার ও বাসার আসবাবপত্র ভাংচুর করে।

গত শনিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আক্রান্তদের অভিযোগ চিকনাগুল ইউনিয়ন পরিষদের ২নং ওয়ার্ডের সদস্য নজির মিয়ার নেতৃত্বে এ হামলা চালানো হয়। আহতদের ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি ও স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

আহতরা হলেন, পাটলী গ্রামের সেলিম উদ্দিনের স্ত্রী হাসনা বেগম (৩০), মৃত আমীর আলীর ছেলে করিম আহমদ (৩৫), আতাউর রহমানের মেয়ে সাবিয়া বেগম (১৫), আলকাছ মিয়া (৬০), হাবিবুর রহমান (৬০), শফিক মিয়া, শাহাব উদ্দিন, রহিম, হাওয়ারুন বেগম, বেলাল আহমদ, জামাল, সেলিম উদ্দিন সহ আরে কয়েকজন। জৈন্তাপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

জৈন্তাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মাইনুল জাকির মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মামলায় উলে­খ করা হয়, পাটনীপাড়া ও পানিছড়ার একটি জলমহাল দুদু মিয়া, ইব্রাহিম মিয়া ও সেলিম মিয়া গংদের ইজারা দেন। ইজারাগ্রহীতারা জলমহালটি সমজিয়া নিয়া শনিবার একটি শিরণীর আয়োজন করেন। শিরণী অনুষ্ঠানে যোগ দেন পাটনী পাড়া ও পানিছড়া গ্রামের লোকজন। শিরণী অনুষ্ঠান চলা অবস্থায় নজির মিয়া মেম্বারের নেতৃত্বে ২০০/২৫০ জন লোক দেশীয় অস্ত্র শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বাড়িঘর ও লোকজনের হামলা চালায়। এসময় ৬টি বসতঘর ভাংচুর ৫টি বৈদ্যুতিক মিটার ও বাসার আসবাবপত্র ভাংচুর করা হয়। এতে ১৫/২০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গেছে।

আক্রান্তরা জানান, নজির মেম্বার বিল পরিচালনা করতে হলে তাকে বড় অংকের চাঁদা দিতে হবে বলে দাবি করেন। এতে অপরাগতা প্রকাশ করলে এই হামলার ঘটনা ঘটে। তাদের অভিযোগ নজির মেম্বার বিভিন্ন অনৈতিকতার কারনে অনেকবার সাজা ভুগ করেছেন। তিনি নিপেন্দ্র মাস্টার, নিজাম, নিকেশ ও মান্নান মাস্টারের মাধ্যমে এলাকার মধ্যে অস্থিরতা সৃষ্টি করেছেন।

তাদের নেতৃত্বে শামীম, হানিফ, হারুন, মজিদ, নিপেন্দ্র, এম. আহমদ, হারুন, জয়নাল, সাধু, আবুল, সুনাম, কয়ছর, ফয়ছল, আলতাফ সহ সন্ত্রাসীরা অতর্কিতভাবে নিরীহ লোকজনের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালায়। এলাকাবাসীর অভিযোগ নিপেন্দ্র মাস্টার নজির মেম্বারের মদদে এলাকায় নানা অপতৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন। এ ঘটনায় এলাকায় আতঙ্কের সৃষ্টি হয়।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •