‘নির্বাচন কমিশন লেজুড়ভিত্তিক কমিশন, এতে আস্থা নেই’: খেলাফত মজলিস আমীর মাওলানা ইসহাক

36 total views, 1 views today

নির্বাচন কমিশনকে সরকারের লেজুড়ভিত্তিক কমিশন উল্লেখ করেন খেলাফত মজলিসের আমীর ও ২০দলীয় জোটের শীর্ষনেতা অধ্যক্ষ মাওলানা মুহাম্মদ ইসহাক বলেছেন, ‘বর্তমান সরকারের অধিনের এই কমিশনে আমাদের আস্থা নেই। এ কারণে কমিশন পুর্নগঠিত করতে হবে।’

তিনি এও বলেন, ‘বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের একটি ‘জালেম’ সরকার। এই সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যেতে হবে। এ কারণে ২০দলীয় জোটের শরীকদের শঙ্কিত হওয়া কিছু নেই। ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে এই সরকারের পতন হবেই হবে।’

গতকাল সোমবার ওসমানীনগর উপজেলার দয়ামীর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে খেলাফত মজলিস বিশ্বনাথ, ওসমানীনগর ও বালাগঞ্জ উপজেলা শাখা আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-২ (বিশ্বনাথ, ওসমানীনগর ও বালাগঞ্জের একাংশ) সংগঠনের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মুহাম্মদ মুনতাসির আলীকে ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন চাইবেন উল্লেখ করে বয়োজ্যেষ্ট এই রাজনীতিবীদ আরো বলেন, জনসমর্থন বিবেচনায় ২০দলীয় জোটের কাছে আমাদের প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়ার জন্য চাইবো। তাকে যেভাবেই হোক এই আসনে জোটের প্রার্থী করা হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।ওসমানীনগর উপজেলা খেলাফত মজলিসের সভাপতি মাওলানা হোসাইন আহমদের সভাপতিত্বে আয়োজিত জনসভায় তিনি নিখোঁজ বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য এম ইলিয়াস আলীর প্রতি সম্মান জানিয়ে বলেন, ইলিয়াস আলীর সম্মানার্থে তার স্ত্রীকে আগামীতে মন্ত্রী করা হবে। এছাড়া সংরক্ষিত আসন থেকে তাকে যাতে সংসদ সদস্য করা হয় সে ব্যাপারেও তিনি ভ‚মিকা রাখবেন। তবে, সিলেট-২ আসন কোনভাবেই ছাড় দেওয়া হবে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

ওসমানী নগর উপজেলা খেলাফত মজলিসের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা শুয়েব আহমদ ও বালাগঞ্জ উপজেলা খেলাফত মজলিসের সহ-সভাপতি মাওলানা হোসাইন আহমদ মিসবাহ’র যৌথ পরিচালনায় জনসভায় প্রধান বক্তার বক্তব্য খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও সিলেট-২ আসনের সম্ভাব্য সংসদ সদস্য প্রার্থী মুহাম্মদ মুনতাসির আলী বলেন, ‘খেলাফত রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা ছাড়া দেশের মানুষের মুক্তি সম্ভব নয়। এ কারণে মানবতার কল্যাণের জন্য মহানবী (সা.)-এর শেখানো পথের মাধ্যমে মানুষের মুক্তির কাজে লিপ্ত থাকবে খেলাফত মজলিস।’ তিনি বলেন, খেলাফত মজলিস ২০দলীয় জোটের সাথে রয়েছে, থাকবেও। তবে কেন্দ্রীয় নির্দেশনার প্রেক্ষিতে আগামী দিনে দুর্নীতিমুক্ত উন্নয়ন, সন্ত্রাসমুক্ত সমাজ গঠনে খেলাফত মজলিস সিলেট-২ আসনে নির্বাচন করবেই করবে। এজন্য তিনি নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থেকে কাজ করার আহবান জানান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- খেলাফত মজলিস সিলেট জেলা সভাপতি সৈয়দ মাওলানা মুশাহিদ আলী, কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা তুফাজ্জল হোসেন নিয়াজী, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য ও মৌলভীবাজার জেলা সভাপতি অধ্যাপক মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুস সবুর, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য ও মৌলভীবাজার জেলার সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আহমদ বেলাল, সিলেট জেলার সাধারণ সম্পাদক মাওলানা নেহাল আহমদ, জেলার সহ সাধারণ সম্পাদক দিলওয়ার হোসাইন, মাওলানা ওলিউর রহমান, বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা সৈয়দ আলী আসগর, সিলেট জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা কাজী আব্দুল ওয়াদুদ, জেলা অফিস ও প্রচার সম্পাদক মাওলানা আশিকুর রহমান, জেলা সমাজ কল্যাণ সম্পাদক হাফিজ ছৈইদুর রহমান চৌধুরী, বিশ্বনাথ উপজেলা সভাপতি মাওলানা আব্দুল মতিন, বালাগঞ্জ উপজেলা সভাপতি মাওলানা হোসাইন আহমদ আবদাল, বালাগঞ্জ উপজেলা সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম আশিক, সহ-সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মিছবাহ উদ্দিন মিছলু।

বক্তব্য রাখেন, ছাত্রনেতা জাকির হোসেন, বেলাল আহমদ চৌধুরী, মোহাম্মদ শাহীন, মজলিস নেতা খালেদ আহমদ, সালমান আহমদ, রায়হান আহমদ, আবু বকর, মুহাম্মদ মুজাক্কিও হোসেন, মাওলানা জয়নাল আবেদীন, মাওলানা শাহীনুল হক, মাওলানা আব্দুল আজিজ সায়েক, সালেহ আহমদ, মাওলানা নজরুল ইসলাম, ছোরাব উদ্দিন প্রমুখ।
এদিকে, বেলা ২টা থেকে শুরু হওয়া জনসভায় তিন উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে মিছিল নিয়ে নেতাকর্মীরা এসে উপস্থিত হন। ফলে মুহুর্তে কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে যায় সভা প্রাঙ্গন। নেতাকর্মীদের মিছিলে পুরো এলাকা প্রকম্পিত হয়ে ওঠে। তাদের দাবি, আগামী নির্বাচনে সিলেট-২ আসনে খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মুনতাসির আলীকে ২০দলের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিতে হবে।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •