পল্লবী আবাসিক এলাকায় গেইট নির্মাণ না হলে কোনো উন্নয়ন করতে দেওয়া হবে না

77 total views, 1 views today

নগরীর পাঠানটুলাস্থ পনিটুলার ৮নং ওয়ার্ডের পল্লবী আবাসিক এলাকার রাস্থা প্রসস্থকরণ ও রাস্থার প্রধান ফটকে গেইট নির্মাণের জন্য গতকাল বৃহস্পতিবার নগরীর পাঠানটুলাস্থ পনিটুলার ৮নং ওয়ার্ডে পল্লবী সমাজ কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

রাস্থা প্রসস্থকরণ ও রাস্থার প্রধান ফটকে গেইট নির্মাণের জন্য আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সেলিম আহমদ সেলিম, কয়েস চৌধুরী, আব্দুস সামাদ, আব্দুর রহমান শাহজান, কবির আহমদ, শুভ ঘোষ, খালেদ রাজা, মাহবুবুর রহমান, জুবায়ের, রুবী চৌধুরী, মুন্না, মিজান, জুমান আলী পীর, আব্দুল কাইয়ুম (মাছুম), বাপন ঘোষ, জাবির চৌধুরী, পল্লবী সমাজ কল্যাণ সংস্থার উপদেষ্টা ও বিশিষ্ট মুরুব্বি আব্দুল জলিল, প্রদীপ ঘোষ, ইকবাল চৌধুরী, আং হাদী, আবু তাহের, আব্দুস ছালাম, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল করিম।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, পনিটুলা অনেক পুরাতন একটি এলাকা। এখানে মূলত হিন্দু সম্প্রদায়ের বসবাস ছিল। ১৯৫৬ সালের এস.এ. রেকর্ড অনুযায়ী তখনকার সময়ে পনিটুলায় ২-১টি মুসলিম পরিবার ছিল। দিনের সাথে সাথেও পনিটুলায় পরিবর্তন আসতে শুরু করে। হিন্দু সম্প্রদায়ের পাশাপাশি মুসলিম পরিবারের সংখ্যাও বাড়তে থাকে এবং সুন্দরভাবে এলাকায় বসবাস করতে থাকেন। ১৯৮৮ সালে এলাকার যুব সমাজ ও মুরুব্বিদের নিয়ে পনিটুলার সার্বিক উন্নয়নের কথা চিন্তা করে ‘শিক্ষা-শান্তি-ঐক্য-প্রগতি’র লক্ষ্যে পল্লবী সমাজ কল্যাণ সংস্থা গঠন করা হয়। তখনকার সময়ে কয়েকজন এই সামাজিক সংগঠনের বিরোধিতা করলেও ১৯৯৩ সালে বাংলাদেশ সরকারের ৩২৬ নম্বর স্বীকৃতি লাভ করে পল্লবী সমাজ কল্যাণ সংস্থা (রেজি. নং- সিল:- ৩২৬/৯৩)। সংগঠনের শুরু থেকে সকল সদস্যবৃন্দ সহ পনিটুলা এলাকার উন্নয়নে বিভিন্ন ড্রেইন নির্মাণ, কালভার্ট নির্মাণ, অসহায় গরিব পরিবারকে সাহায্য দান, এতিম ও দরিদ্র মেয়েদেরকে বিবাহ দিয়ে সাহায্য দান এবং শিশুদের বিভিন্ন খেলাধুলাসহ বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। ২০০১ সালে পনিটুলা এলাকার সার্বিক নিরাপত্তা ও পনিটুলার সৌন্দর্য্য রক্ষার জন্য এলাকায় ৪টি গেইট নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করে। কিন্তু তখনকার সময়ে রাজনৈতিক বিভিন্ন আন্দোলন ও দাঙ্গা-হাঙ্গামার জন্য গেইটগুলো নির্মাণ করা হয় নি। গত সিটি নির্বাচনে পনিটুলা এলাকাবাসীর দাবি ছিল গেইট নির্মাণ ও রাস্থা প্রসস্থকরণ এবং সাপ্লাইয়ের পানি সংযোগ করে দেওয়ার দাবি এবং নির্বাচনের পর এলাকাবাসী স্থানীয় কাউন্সিলার, জনপ্রতিনিধি ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে পল্লবী সমাজ কল্যাণ সংস্থার কার্যালয়ে প্রায় ২০টি মিটিং করে এই গেইট নির্মাণের জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কিন্তু তাতেও লাভ হলো না, আলোরমুখ দেখেনি পনিটুলা এলাকার জনসাধারণ। তার প্রধান কারণ ছিল পনিটুলার পল্লবী আবাসিক এলাকার প্রধান গেইটের সাথে থাকা ‘লতিফ ম্যানশন’র জন্য। ২০১৫ সালে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের উদ্বোধনে পনিটুলা এলাকার রাস্থা প্রসস্থকরণ ও গেইট নির্মাণের জন্য অনুমতি পেলেও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও কাউন্সিলর এবং গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সাথে সংগঠনের অফিসে বসে সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত হয় যে, রাস্থার প্রসস্থকরণের জন্য উভয় পাশ থেকে দেড় ফুট করে জায়গার মালিকদের ছাড় দিতে হবে, সবাই তা মানতে রাজি হন। কিন্তু রাস্থার প্রসস্থকরণের কাজের সময় দেখা যায় ভিন্ন চিত্র, পাড়ার ভেতরের রাস্থার পাশে কোনো কোনো জায়গা থেকে দেড় ফুট, কোনো কোনো জায়গা থেকে দুই ফুট আবার কোনো কোনো জায়গা থেকে এক ইঞ্চিও জায়গা নেওয়া হচ্ছে না এবং পল্লবী আবাসিক এলাকার প্রধান গেইটের সাথে থাকা ‘লতিফ ম্যানশন’ থেকে প্রধান গেইটের জন্য কোনো জায়গা নেওয়া হয় নি। এস.এ. রেকর্ড অনুযায়ী পল্লবী আবাসিক এলাকার প্রধান গেইটের ৩০ ফুটের জায়গায় বর্তমানে তা ২২ ফুটের মতো আছে। পাড়ার ভেতরের বসবাসরত সকলেই রাস্থা প্রসস্থকরণ ও প্রধান গেইট নির্মাণের জন্য নিজেদের জায়গা থেকে রাস্থার জন্য জায়গা দিলেও পল্লবী আবাসিক এলাকার প্রধান গেইটের সাথে থাকা ‘লতিফ ম্যানশন’ থেকে প্রধান গেইট নির্মাণের জন্য কোনো জায়গা দেওয়া হয় নি।

বক্তারা আরো বলেন, পল্লবী আবাসিক এলাকার সার্বিক উন্নয়নে প্রধান গেইট নির্মাণের জন্য যদি ‘লতিফ ম্যানশন’ থেকে কোনো জায়গা দেওয়া না হয় তাহলে পরবর্তীকালে পল্লবী আবাসিক এলাকায় আর কোনো উন্নয়ন করতে দেওয়া হবে না। যদি পল্লবী আবাসিক এলাকার প্রধান গেইট নির্মাণ না হয় তাহলে এলাকাবাসীর যে ক্ষতি হয়েছে তা পূরণ করে দিতে হবে। পল্লবী আবাসিক এলাকার প্রধান গেইট নির্মাণের জন্য পল্লবী সমাজ কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে পরবর্তীকালে আরো বড় ধরনের কর্মসূচির ডাক দেওয়া হবে।

রাস্থা প্রসস্থকরণ ও রাস্থার প্রধান ফটকে গেইট নির্মাণের জন্য আয়োজিত মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন আশু ঘোষ, প্রদিপ ঘোষ, ফজলুর রহমান ফজলু, হাজী আব্দুল জলিলসহ পল্লবী সমাজ কল্যাণ সংস্থার সকল সদস্য এবং পাঠানটুলাস্থ পনিটুলার ৮নং ওয়ার্ডের পল্লবী আবাসিক এলাকার সর্বস্থরের জনসাধারণ।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •