বাংলাদেশ যুব গেমস সারাদেশে যুব জাগরণের সৃষ্টি করেছে: আশিকুর রহমান মিকু

44 total views, 1 views today

বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশনের তত্ত্বাবধানে ও সিলেট বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ যুব গেমস-২০১৮ সিলেট বিভাগীয় পর্যায়ে আন্তঃজেলা কাবাডি প্রতিযোগিতা সম্পন্ন হয়েছে। বৃহস্পতিবার আবুল মাল আবদুল মুহিত ক্রীড়া কমপ্লেক্সে তরুণ এবং তরুণীদের উভয় খেলায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে মৌলভীবাজার কাবাডি দল। আর উভয় খেলায় (তরুণ-তরুণী) রানারআপ হয়েছে সিলেটে জেলা দল। খেলায় সুনামগঞ্জ এবং হবিগঞ্জ জেলা দলও অংশগ্রহণ করে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ যুব গেমস-২০১৮ এর স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য সচিব ও বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশনের উপ-মহাসচিব আশিকুর রহমান মিকু।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মিকু বলেন- বাংলাদেশ যুব গেমস সারাদেশে যুব জাগরণের সৃষ্টি করেছে। কারণ যুব গেম দেশের সর্ববৃহৎ ক্রীড়াযজ্ঞ। এই ক্রীড়াযজ্ঞের সাথে দেশের ৬৪ জেলা এবং প্রত্যেকটি উপজেলা সম্পৃক্ত।

তিনি বিভিন্ন ইভেন্টে অংশগ্রহণকারী উপজেলার পরিসংখ্যান উপস্থান করে বলেন- কাবাডিতে ৩৬৫ উপজেলা, ফুটবলে ৩৬০টি, হ্যান্ডবলে ২৪২টি, ভলিবলে ২৫৭টি, দাবায় ১৮৮টি এবং ব্যাডমিন্টনে সেরা সিলেট দলসহ ২৮২টি দল অংশগ্রহণ করেছে। একমাত্র ক্রিকেট সব ক’টি জেলায় বিচরণ করে থাকলেও অন্যান্য খেলা প্রায় হারিয়ে যেতে বসেছিলো মন্তব্য করে তিনি বলেন- যে কারণে ক্রীড়াবান্ধব সরকার তৃণমূলে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা প্রতিভাবান খেলোয়াড় তৈরির লক্ষে বৃহৎ এ ক্রীড়া আসর আয়োজন করেছে। আর তাতে দেশের ক্রীড়াঙ্গনে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে। সরকার চায় লেখাপড়ার পাশাপাশি তরুণ প্রজন্ম খেলাধুলা মনোযোগী হোক। নিজেদের মেলে ধরুক। জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দেশের মান বৃদ্ধি করুক। যুব গেমসের মাধ্যমে দেশের ক্রীড়াঙ্গন আরো সমৃদ্ধ হবে জানিয়ে তিনি সুন্দর আয়োজনের জন্য সিলেট বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থাকে অভিনন্দন জানান।

সিলেট বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার অফিস সচিব বিপুল চন্দ্র তালুকদারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- সিলেট বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের কার্য নির্বাহী পরিষদের সদস্য মাহিউদ্দিন আহমদ সেলিম, সিলেট বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার কোষাধ্যক্ষ সাহিদ আহমদ চৌধুরী জুয়েল, সিলেট জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মারিয়াম চৌধুরী মাম্মী, জেলা ক্রীড়া সংস্থার কোষাধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দিন, জহুর চৌধুরী বাবু, দিপাল কুমার সিংহ, সমর চৌধুরী, শিপ্রা দে প্রমুখ।

খেলায় চ্যাম্পিয়ন দলের প্রত্যেক খেলোয়াড়কে ১২০০ টাকা এবং রানারআপ দলের প্রত্যেককে ৮০০ টাকা করে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

আজ শুক্রবার যুব গেমসের শেষদিনে সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে অ্যাথলেটিক ও আবুল মাল আবদুল মুহিত ক্রীড়া কমপ্লেক্সে চুড়ান্তপর্বের ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •