মাদকদ্রব্যের ভয়াল গ্রাস থেকে তরুণ সমাজকে রক্ষা করতে হবে:ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম

সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম বলেছেন, মাদকের কুফল সম্পর্কে ব্যাপক সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে। মাদকের ভয়াবহতা সম্পর্কে গণমাধ্যম সহ বিভিন্ন প্রচার মাধ্যমে প্রচার প্রচারণা বৃদ্ধি করতে হবে। তিনি বলেন, মাদক একটি জীবনকে ধবংশ করে দেয়। তার সাথে ক্ষতিগ্রস্থ হয় একটি পরিবার। তাই মাদকদ্রব্যের ব্যবহার ও তা প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

তবেই মাদকদ্রব্যের ভয়াল গ্রাস থেকে তরুণ সমাজকে রক্ষা করা সম্ভব হবে। অর্থের লোভে আজ মরণ নেশা ইয়াবা তরুণদের হাতে তুলে দিচ্ছে কিছু মাদক ব্যবসায়ী। যা এখন সমাজের বিভিন্ন পর্যায়ে বিস্তার লাভ করেছে। মাদক ব্যবসায়ীরা যুব সমাজকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিয়ে নিজেদের টাকার পাহাড় গড়ছে। পাড়া মহলায় এদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা এখন জরুরী।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের ২৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর সিলেটের আয়োজনে মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) মাদকদ্রব্য অধিদপ্তর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
আলোচনা সভার পূর্বে পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। পরে নগরীতে একটি র‌্যালী বের করা হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন সিলেট জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার। জান্নাতুল নাজনীন আশার পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি বিপিএম মো. কামরুল আহসান, এসএমপি পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়া, বিশিস্ট সাংবাদিক ও কলামিস্ট আফতাব চৌধুরী, পুলিশ সুপার মো. মনিরুজ্জামান প্রমুখ।

আলোচনা সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন কালেক্টরেট জামে মসজিদের পেশ ইমাম মো. শাহ আলম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিভাগীয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কার্যালয়ে সিলেটের অতিরিক্ত পরিচালক মো. জাফরুল্যাহ কাজল।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •