সিলেটে বিশ্বকবি রবি ঠাকুরের ম্যুরালের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন:মেয়র আরিফ

63 total views, 1 views today

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সিলেট সফরের শতবার্ষিকী সামনে রেখে নগরীর মাছিমপুরে কবিগুরুর ম্যুরালের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। শনিবার(৩০ ডিসেম্বর ২০১৭) দুপুরে মাছিমপুর মণিপুরী পাড়ায় ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ২৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোস্তাক আহমদ, মহিলা কাউন্সিলর সালেহা কবির শেপি ও সাবেক কাউন্সিলর হাজী মো. ফারুক আহমদ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, নগরীর মাছিমপুর মণিপুরী পাড়ায় কবিগুরুর আগমণ একটি ঐতিহাসিক ঘটনা। ১৯১৯ সালের ৬ নভেম্বর বিশ্বকবি সিলেট আগমন করেন। তখন তিনি মাছিমপুর মণিপুরী পাড়ায় যান এবং মনিপুরী নৃত্য দেখে মুগ্ধ হন। এরপর কবিগুরুর হাত ধরেই মণিপুরী নৃত্য বিশ্ব বিস্তৃতি লাভ করে। তিনি বলেন, কবি গুরুর শুভাগমণের ঘটনা শুধু মাছিমপুর এলাকার নয়, গোটা জাতির জন্য গৌরবের বিষয়। মেয়র ঘোষণা দেন ম্যুরাল স্থাপনের পাশপাশি কবিগুরুর ম্যুরালের পাশপাশি মাছিমপুরে পাঠাগার ও একাডেমি প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনা রয়েছে।

ভিত্তিপ্রস্তর স্ঞাপন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মণিপুরী সমাজকল্যাণ সমিতি সিলেট জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক সংগ্রাম সিংহ। অনুষ্ঠানে অন্যান্যর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এলাকার মুরব্বী মাহমুদ আলী, মাছিমপুর মনিপুরী পাড়া পঞ্চায়েত কমিটির সভাপতি সত্যজিত সিংহ সত্যবান, সাংবাদিক আবুল মোহাম্মদ, মণিপুরী সমাজ কল্যাণ সমিতির কেন্দ্রীয় পরিষদের দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক সুনীল সিংহ, মণিপুরী সমাজ কল্যাণ সমিতি সিলেট জেলা শাখার সহ সভাপতি ডা. ইউকে সিংহ, মাছিমপুর শাখার সভাপতি রমেন্দ্র সিংহ বাপ্পা, সাধারণ সম্পাদক ধীরেন্দ্র সিংহ ধীরু, গোপীনাথ জিউর আখড়া কমিটির সভাপতি অলক কুমার সিংহ, প্রকৌশলী বসন্ত কুমার সিংহ, প্রদীপ কুমার সিংহ, রাখাল সিংহ, সমাজসেবী প্রদীপ কুমার সিংহ, রাখাল সিংহ ও প্রবাসী বিলাস সিংহ।

অনুষ্ঠানে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী আরো বলেন, সিলেটকে পর্যটন নগরী হিসাবে গড়ে তুলতে আমার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। মেয়র বলেন, সিলেটে ইতিহাসবিদ ইবনে বতুতার সফর স্মৃতিময় করে রাখতেও উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

উল্লেখ্য, বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ১৯১৯ সালের ৬ নভেম্বর সিলেট সফরকালে মাছিমপুর মণিপুরী পাড়ায় যান। এসময় তিনি মণিপুরী নৃত্য দেখে কবিগুরু মুগ্ধ হন এবং পরবর্তীতে নৃত্যগুরু নীলেশ্বর মুখার্জীকে শান্তিনিকেতনে নিয়ে বিশ্বভ্রাপী।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •