মাই টিভি সিলেট বিভাগীয় অফিসে অভিনব কায়দায় চুরি

নগরীর তালতলাস্থ মাই টিভি সিলেট বিভাগীয় অফিসে অভিনব কায়দায় চুরির ঘটনা ঘটেছে। ২৭ ডিসেম্বর বুধবার সকালে মাহমুদ শাহ শপিং সেন্টারের দ্বিতীয় তলায় এ ঘটনাটি ঘটে। চুরেরা অফিসের তালা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে ২টি ক্যামেরা ও একটি ল্যাপটপ’সহ জরুরী মালামাল নিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় কতোয়ালী মডেল থানায় একটি অভিযোগ প্রদান করা হয়েছে।

অভিযোগে জানা যায়, মাই টিভি সিলেট অফিসের প্রতিনিধি এম.আর টুনু তালুকদার প্রতিদিনের মতো গত মঙ্গলবার রাতে অফিস তালাবদ্ধ করে বাসায় যান। বুধবার (আজ) সকালে তিনি ও অফিসের ক্যামেরাপার্সন শাহীন আহমদ সকালে অফিসে এসে দেখতে পান তাদের অফিসের তালা ভাঙ্গা। এক পর্যায়ে মার্কেটের ব্যবসায়ীদেরকে নিয়ে অফিসের ভিতরে গিয়ে সবাই দেখতে পান ঘরের সকল মালামাল তছনছ। এছাড়া মাইটিভি অফিসের দেওয়া বড় একটি এইচডি ক্যামেরা, একটি ক্যানন ক্যামেরা (বড়) এবং একটি অত্যাধুনিক ল্যাপটপ’সহ জরুরী যন্ত্রাংশ ও কাগজপত্র নিয়ে যায়।

অভিযোগ উঠেছে, সুমা ইন্টারন্যাশনাল ট্রাভেলসের সত্বাধিকারী মাতাহার হোসেন বাবুল নগরীর তালতলাস্থ মাহমুদ শাহ শপিং সেন্টারে ভাড়া নিয়ে দীর্ঘদিন ট্রাভেলস ব্যবসা করে ছিলেন। বর্তমানে সুরমা টাওয়ারের ৬ষ্ট তলায় ঐ নামে ব্যবসা করে যাচ্ছেন। কিন্তু পুরনো দোকানের বিদ্যুৎ বিল নিয়ে দোকান মালিকের সাথে দ্বন্ধ চলে আসছিল সোমা ইন্টারন্যাশনাল ট্রাভেলস মালিক মুতাহার হোসেন বাবুলের। এরই জের ধরে পরিকল্পিত ভাবে সোমা ট্রাভেলস কর্তৃপক্ষ এমন ঘটনার জন্ম দিয়েছে বলে ধারণা করা যাচ্ছে। তবে মাইটিভি দীর্ঘ সাত মাস ধরে ভাড়া নিয়ে অফিসের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

চুরির ঘটনার খবর পেয়ে কতোয়ালী মডেল থানার এ এস আই হোসাইন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। খবর পেয়ে সিলেটের কর্মরত সিনিয়র সাংবাদিকবৃন্দ সহ তালতলার ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় মাইটিভির সিলেট প্রতিনিধি এম.আর টুনু তালুকদার বাদি হয়ে কতোয়ালী মডেল থানায় একটি এজাহার দাখিল করেছেন।

এ ব্যাপারে কতোয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ গৌছুল আলম জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। মাইটিভির পক্ষ থেকে একটি অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •