দারিদ্র্য ২২ শতাংশ থেকে ৭ শতাংশে নামিয়ে আনতে চাই : অর্থমন্ত্রী

47 total views, 2 views today

নিউজ ডেক্স:: দারিদ্র্য আমাদের দেশের অন্যতম সমস্যা। এক সময় এই সমস্যা প্রকট ছিল। এখন দারিদ্র্য কমে ২২ শতাংশে নেমে এসেছে। অর্থাৎ এখনো ৩ কোটি মানুষ দরিদ্র। বাংলাদেশ যেভাবে উন্নয়নের দিকে যাচ্ছে তাতে ২০২৪ সালে দেশে দারিদ্র্য থাকবে না।

গতকাল ২২ ডিসেম্বর শুক্রবার সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশন আয়োজিত ‘টেকসই উন্নয়ন অভিষ্ট অর্জনে বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশন’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

তিনি বলেন, বিশ্বের কোনো দেশই দারিদ্র্য শূণ্যের কোঠায় আনতে পারেনি। কারণ যারা শারীরিক প্রতিবন্ধী, বৃদ্ধ-বয়স্ক, তারা কোনো না কোনভাবে রাষ্ট্রের উপর নির্ভরশীল। বিশ্বে একমাত্র মালয়েশিয়া পেরেছে দারিদ্র্যের হার ৭ শতাংশে নিয়ে আসতে। এটাকে স্ট্যান্ডার্ড ধরে আগামী ৭ বছরে আমাদের লক্ষ্য ৭ শতাংশে নামিয়ে আনা। ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশ হবে বলে আশা প্রকাশ করেন মন্ত্রী।

মন্ত্রী আরো বলেন- মধ্যম আয়ের দেশ হলে একটি সমস্যা হয়, একটা স্থবিরতা এসে যায়। এর উদাহরণ মেক্সিকো। কাজেই সন্তোষজনক পর্যায়ে পৌঁছলেও আমাদেরকে থেমে থাকা চলবে না।

ইনস্টিটিউট অব ডেভেলপমেন্ট এফেয়ার্স (আইডিয়া)র আয়োজনে অনুষ্ঠিত উক্ত সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান এ এফ এম ইয়াহিয়া চৌধুরী। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, জেলা প্রশাসক মো. রাহাত আনোয়ার, জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

অনুষ্ঠানে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. নিয়াজ আহমদ খান। আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শাবিপ্রবি নৃ-বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক এ কে এম মাজহারুল ইসলাম। বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশন পরিচালিত “ডায়নামিক অব বেনিফিট টু ইনদিভিজ্যুয়ালস থ্রো বিএনএফ সাপোর্ট টু পার্টনার ওর্গানাইজেশন” এবং “সাস্টেইনেবিলিটি অব বিএনএফ পার্টনার ওর্গানাইজেশন ফর বাংলাদেশ সোসিও ইকোনমিক ডেভলাপমেন্ট” শীর্ষক ২টি গবেষণা রিপোর্টের মোড়ক উন্মোচন করেন অতিথিবৃন্দ।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশন (বিএনএফ) অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের অধীনে স্বশাসিত প্রতিষ্ঠান হিসেবে সারা দেশের ১১২০টি বেসরকারি সহযোগী সংস্থার মাধ্যমে প্রায় এক কোটি মানুষের উন্নয়নে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •