দুদকের সঙ্গে মাঠে নামছে মন্ত্রণালয়

নিউজ ডেক্স:: শিক্ষাখাতে অনিয়ম-দুর্নীতি বন্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সঙ্গে এবার মাঠে নামছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। করণীয় ঠিক করতে আগামী রোববার দুদকের সঙ্গে বৈঠকে বসছেন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

গতকাল এ সংক্রান্ত হোম ওয়ার্ক সেরেছে সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলো। শিক্ষা মন্ত্রণালয়, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি), শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা এ সংক্রান্ত তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করার কাজে ব্যস্ত থাকতে দেখা যায়। বুধবার শিক্ষাখাতে নৈরাজ্য, প্রশ্নপত্র ফাঁস, নোট বা গাইড ও কোচিং বাণিজ্য, জাল সনদে চাকরি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো নির্মাণে অনিয়ম, এমপিওভুক্তি, প্রকল্পে টাকা হরিলুট, নিয়োগ ও বদলি বন্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন ৩৯ দফা সুপারিশ সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোতে পাঠিয়েছে। এ সুপারিশের ওপর ভিত্তি করেই আলোচনা হবে বলে দুদক ও মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে দুদকের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য বলেন, আগামী রোববার সকাল ১০টায় দুদক কার্যালয়ে এ বৈঠক হবে। বৈঠকে কী কী আলোচনা হবে তা শিক্ষা মন্ত্রণালয় বলতে পারবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (উন্নয়ন-১) মাহমুদুল ইসলাম বলেন, বৈঠক হবে সেটা জানি। তবে আলোচনার বিষয় জানা নেই।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর এসএম ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, এটা নিয়ে মন্ত্রণালয় কাজ করছে। এ বিষয়ে আমি কিছুই জানি না।
বৈঠকের বিষয়ে জানতে চাইলে একাধিক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করে বলেন, দুদকের বর্তমান চেয়ারম্যান শিক্ষাক্ষেত্রে দুর্নীতি বন্ধে তার তৎপরতায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে ইমেজ সংকটে পড়েছে। বিশেষ করে কোচিং বাণিজ্য, জাল সনদে চাকরি, কেনাকাটায় কমিশন নেয়া, পছন্দের লোকজনকে কাজ পাইয়ে দেয়া, বিভিন্ন প্রকল্পের গাড়ি মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের ব্যবহার, বদলি বাণিজ্যসহ কয়েকটি খাতে দুদকের স্পষ্ট বক্তব্যে বিব্রত বোধ করছেন কর্মকর্তারা। তাই নিজেদের তৎপরতা দেখাতে দুদকের সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করতে চান তারা। ইতিমধ্যে দুদকের সুপারিশ করা রাজধানীর ৯৭ জন শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ফাইল তুলেছে মাধ্যমিক শাখা।

গত বুধবার দুদকের দুর্নীতি প্রতিরোধে গঠিত শিক্ষা সংক্রান্ত প্রাতিষ্ঠানিক টিম’র অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে প্রশ্নপত্র ফাঁস, নোট বা গাইড, কোচিং বাণিজ্য, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো নির্মাণ, এমপিওভুক্তি, নিয়োগ ও বদলিসহ বিভিন্ন দুর্নীতির উৎস এবং তা বন্ধের জন্য সুস্পষ্ট ৩৯ দফা নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

সূত্র:মানবজমিন

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •