ঢাবি’র প্রশ্নপত্র ফাঁস করত প্রেস কর্মচারী

নিউজ ডেক্স:: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে গত ৭ ডিসেম্বর থেকে এ পর্যন্ত ১০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে সিআইডি। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে খান বাহাদুর নামে এক প্রেস কর্মচারীর মাধ্যমে ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়ে আসছিল।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর মালিবাগে এক সংবাদ সম্মেলনে সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার মোল্যা নজরুল ইসলাম এসব তথ্য জানান।

মোল্যা নজরুল ইসলাম বলেন, সর্বশেষ গতকাল বুধবার জামালপুর থেকে সাইফুল ইসলাম নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার ঢাকার ফার্মগেটের ইন্দিরা রোড থেকে গ্রেপ্তার করা হয় খান বাহাদুর নামে প্রেসের এক কর্মচারীকে। যার মাধ্যমে মূলত প্রশ্ন ফাঁস হতো।

সিআইডির এ কর্মকর্তার দাবি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশ্নপত্র যেখানে ছাপা হয়, সেখানকার কর্মচারী এই খান বাহাদুর। বাহাদুরের মাধ্যমেই মূলত ছাপাখানা থেকে প্রশ্ন ফাঁস হয়ে চলে যেত সাইফুলের হাতে। তারপরই রাকিবুল হাসান এছামী তা ভর্তিচ্ছুদের কাছে বিক্রি করতেন। এছামী নাটোর জেলা ক্রীড়া কর্মকর্তা। তাকে গত সোমবার গ্রেপ্তার করে সিআইডির একটি বিশেষ দল। রাকিবুল হাসান এছামীর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই গ্রেপ্তার করা হয় সাইফুল ইসলামকে।

নজরুল ইসলাম জানান, প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনায় এ পর্যন্ত ২৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। যার মধ্যে গত ৭ ডিসেম্বর থেকে এ পর্যন্ত ১০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে পাঁচজন কারাগারে, তিনজন রিমান্ডে এবং দুজন গ্রেপ্তার আছেন।

সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার বলেন, যাদের গ্রেপ্তার করেছি, সবাই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। এখন কারও পরিবার যদি দাবি করে, তাদের সন্তানরা এতে জড়িত না, তাহলে সেটা আমরা ভেরিভাই করব।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •